৭ মার্চ রাজ্যে ভোটের দিন ঘোষণা? ইঙ্গিত দিলেন মোদি

ফোর্থ পিলার

৭ মার্চ সম্ভবত পাঁচ রাজ্যের বিধানসভা নির্বাচনের দিন ঘোষণা করতে পারে নির্বাচন কমিশন। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির বক্তব্যতে এই কথা উঠে আসছে। অসমে ভোটের প্রচারে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি গিয়েছিলেন। সেই মঞ্চ থেকেই আনুমানিক এই দিন ঘোষণার কথা জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। অসম, পশ্চিমবঙ্গ সহ পাঁচ রাজ্যকে পাখির চোখ করেছে বিজেপি।

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি প্রতি মাসে সফরে আসছেন। পশ্চিমবঙ্গে ৭ মার্চের আগে আরও বেশি করে রাজ্যগুলিতে পৌঁছতে চাইছেন প্রধানমন্ত্রী। তার বক্তব্যে এই কথা উঠে এসেছে। ডবল ইঞ্জিন সরকার প্রয়োজন রাজ্যের উন্নয়নের জন্য। এই কথা রাজ্য ও কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব বরাবর দাবি করে আসছে প্রত্যেকটি জনসভায়। অসমের সভামঞ্চে থেকে প্রধানমন্ত্রী একই কথা দাবি করেছেন।

অসমের ধেমাজিতে বিশাল জনসভা করেন মোদি। তিনি জানান, গত বার ৪ মার্চ ভোটের দিনক্ষণ জানিয়েছিল কমিশন। তাই এইবার একই সময় ঘোষণা হতে পারে তিনি জানান। নরেন্দ্র মোদি বলেন, “তিনি চাইছেন যে নির্বাচন কমিশনের ঘোষণার আগে যতবার সম্ভব অসম, পশ্চিমবঙ্গ, কেরল, তামিলনাড়ু ও পুদুচেরি যাওয়ার। সাত মার্চ ভোটের সূচি ঘোষণা হতে পারে। এটি ধরে চলা যেতে পারে।” একবার ভোটের সূচি ঘোষণা হয়ে গেলে কোনও সরকারি প্রকল্পের উদ্বোধন ও ঘোষণা করা যায় না। তাই আরও বেশি করে সরকারি প্রকল্পে জোর দিচ্ছেন কেন্দ্রের বিজেপি নেতৃত্ব।

অসমের উন্নয়নের চিত্র আরও একবার প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্যতে উঠে এসেছে। অসম রাজ্যের উন্নয়নের জন্য ডবল ইঞ্জিন সরকার প্রয়োজন এই দাবি করেছেন প্রধানমন্ত্রী। পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যেও ডবল ইঞ্জিন সরকার প্রয়োজন। এই দাবি করছেন নরেন্দ্র মোদি, অমিত শাহ, জেপি নাড্ডা সহ অন্যান্য বিজেপি নেতৃত্ব। আজ পশ্চিমবঙ্গে হুগলি সাহাগঞ্জে প্রধানমন্ত্রী আসছেন কিছু সময়ের মধ্যেই। তার আগে অসমের মঞ্চ থেকে নির্বাচনী দিন ঘোষণার কথা যথেষ্ট উল্লেখযোগ্য।

আগামী ৭ মার্চ প্রধানমন্ত্রী ব্রিগেড প্যারেড গ্রাউন্ডে সভা করতে পারেন। একথা জানা যাচ্ছে। সেই প্রেক্ষাপটেই দিন ঘোষণা অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ। পশ্চিমবঙ্গের উন্নয়নের ক্ষেত্রেও বিজেপি সরকার প্রয়োজন। এই দাবি উঠছে। তৃণমূল কংগ্রেস সরকারের দুর্নীতি, অপশাসন, হিংসার কথা প্রধানমন্ত্রী একাধিকবার তুলে ধরেছেন। কৃষি সুরক্ষা আইনের ক্ষেত্রে রাজ্যের কৃষকরা সাহায্য পায় না। কেন্দ্রের দৌলতে এই কথা বিজেপি নেতৃত্ব জানাচ্ছে। ৭ মার্চের আগে আরও বেশি করে কেন্দ্রীয় প্রকল্পের উদ্বোধন করা হবে। ভোটের তাগিদে এই দাবি করছে ওয়াকিবহাল মহল।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।