৮ জানুয়ারি থেকে ব্রিটেনের সঙ্গে বিমান যোগাযোগ, সপ্তাহে ১৫ টি উড়ান

ফোর্থ পিলার

ব্রিটেনের সঙ্গে বিমান যোগাযোগ ৮ জানুয়ারি থেকে শুরু হয়ে যাচ্ছে। কেন্দ্রীয় সরকার এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে। তবে সম্পূর্ণ কোভিড বিধিনিষেধ সর্তকতা মেনে চলা হবে। আপাতত ব্রিটেনের সঙ্গে ভারতের বিমান পরিষেবা প্রতি সপ্তাহে ১৫ টি করে থাকবে বলে খবর।
আগামীতে পরিস্থিতি বুঝে ফের ব্যবস্থা নেওয়া হবে। তবে কলকাতা থেকে লন্ডন বিমান চলাচল আপাতত বন্ধ থাকছে।

ব্রিটেনের নতুন করোনা ভাইরাস স্ট্রেন ছড়িয়ে পড়েছে। ভারতেও পাওয়া গিয়েছে এই নতুন করোনা ভাইরাস। এই মুহূর্তে দেশে ২৯ জনের শরীরে পাওয়া গিয়েছে নতুন সংক্রমণ। ফলে দুশ্চিন্তা থাকছেই। আগামী ৭ জানুয়ারি পর্যন্ত ব্রিটেনের সঙ্গে যাত্রীবাহী বিমান পরিষেবা ভারত ছিন্ন করেছে। শুক্রবার সন্ধ্যায় বিমানমন্ত্রী হরদীপ সিং পুরি নিজেই টুইট করেছেন এই বিষয় নিয়ে। মন্ত্রী জানিয়েছেন, ৮ জানুয়ারি থেকে বিমান চলাচল শুরু হবে আবারও। তবে বিমানের সংখ্যা কমিয়ে দেওয়া হয়েছ।

এখন আপাতত ২৩ জানুয়ারি পর্যন্ত প্রতি সপ্তাহে ১৫ টি করে বিমান চলাচল করবে দুই দেশের মধ্যে। দিল্লি, মুম্বই, বেঙ্গালুরু, হায়দরাবাদ থেকে এই বিমান চলাচল হবে। কলকাতার সঙ্গে লন্ডনের বিমান সম্পর্ক শুরু হয়েছিল। কলকাতাকে এই মুহূর্তে বাদ রাখা হচ্ছে। কেন এই বৈষম্য, প্রশ্ন উঠেছে। কলকাতার প্রতি বঞ্চনা করা হচ্ছে বলেও অভিযোগ। যদিও কেন্দ্রীয় বিমানবন্দর একথা মানতে রাজি নয়। ব্রিটেন থেকে আসা যাত্রীদের কড়া নজরে রাখতে হবে। কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রক ফের এই বিষয় নিয়ে কড়া মনোভাব রেখেছে। বিমান বন্দরে যাত্রীদের করোনা ভাইরাস পরীক্ষা করা হচ্ছে।

গত ২৫ নভেম্বর থেকে ২৩ ডিসেম্বরের মধ্যে ব্রিটেন থেকে কলকাতায় ৪৩৭১ একজন যাত্রী এসেছেন। তাদের মধ্যে ১০৪ জন যাত্রী এই রাজ্যের বাসিন্দা। ৮৩ জন কলকাতায় থাকেন। গত ২৩ নভেম্বর থেকে ২৫ ডিসেম্বর পর্যন্ত ৩৩ হাজার যাত্রী এসেছে ভারতে।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।